আলিবাবা ডট কম এর প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক মা এর আত্মজীবনী। prieopathak (প্রিয় পাঠক)

আলিবাবা ডট কম এর প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক মা এর আত্মজীবনী

জীবনধারা

আলিবাবা ডট কম এর প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক মা এর আত্মজীবনী

আলিবাবা ডট কম এর কর্ণধার এবং চীনের শীর্ষ ধনী ব্যক্তি জ্যাক মা এর একটি সংক্ষিপ্ত জীবনী । জ্যাক মা নামটা শুনলেই ছোট চেহারার চীনা লোকটার ছবি চোখে ভেসে উঠে, যিনি একজন চীনা উদ্যোক্তা। যিনি বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে বড় অনলাইন পাইকারী ক্রয়-বিক্রয় সাইট আলিবাবা’র প্রতিষ্ঠাতা, সাবেক সিইও, ও বর্তমান নির্বাহী চেয়ারম্যান। জ্যাক মা ইউ এর জন্ম: সেপ্টেম্বর ১০, ১৯৬৪, হ্যাংজু, ঝেজিয়াং প্রদেশ, চীন। আলিবাবা গ্রুপের {Alibaba Group} প্রতিষ্ঠাতা চিনের এই ধনকুবের নাম প্রায়শই সংবাদ শিরোনামে উঠে আসেন। একসময় চীনের সবচেয়ে বিখ্যাত এবং স্পষ্টভাষী উদ্যোগপতি ছিলেন আলিবাবা’র প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক মা। জ্যাক মা এর জীবনী মানে শুধু একটি সাফল্যগাথা নয়, জ্যাক মার জীবনী একটি ইতিহাস আর অনুপ্রেরণা। ট্রেডিং সাইট আলিবাবা ডট কম এর কর্ণধার এবং চীনের শীর্ষ ধনী ব্যক্তি হলেন জ্যাক মা। তিনি একজন দারুণ বক্তা। জীবনে এতবার ব্যর্থ হওয়ার পরও বড় হওয়ার, প্রতিষ্ঠিত হওয়ার আশা থেকে বিন্দুমাত্র পিছপা হননি। তিনি খুপ অল্প বয়সে ইংরেজি ভাষায় আগ্রহী হয়েছিলেন, এবং কৈশোর বয়সে তিনি বিদেশী পর্যটকদের হাংজহুতে গাইড হিসাবে কাজ করেছিলেন, শুধুমাত্র ইংরেজি শেখার জন্য। ২০১৯ এর এপ্রিল মাসের হিসাব অনুযায়ী তাঁর বর্তমান সম্পদের পরিমান ৪০.১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার! এই বিপুল সম্পদ তাঁকে বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে ধনী মানুষদের একজন করেছে। তাঁর বাবা-মা ছিলেন পেশাদার গল্প বলিয়ে ও সঙ্গীত শিল্পী। এই পেশায় আয় রোজগার খুব বেশি হত না।  দুই ভাই ও এক বোনের মাঝে দ্বিতীয় মা ইউন জ্যাক মা। যে এতবড় বিজনেস ম্যাগনেট হবেন – তা কেউ স্বপ্নেও ভাবেনি। যেই জ্যাক মা চাকরির জন্য ৩০ বার প্রত্যাখ্যাত হয়েছিলেন। অবিরাম চেষ্টা চালিয়ে তিনি আজকের অবস্থানে এসেছেন। তার পথযাত্রা মোটেও সুন্দর ছিল না। তিনি অনেক কষ্টের সম্মুখীন হয়েছিলেন বিভিন্ন ধরনের বাধা অতিক্রম করে তিনি আজ এ পর্যন্ত এসেছেন। আজ তাকে দেখে হাজারো লোক অনুপ্রেরণা পায়। জ্যাক মা (Jack Ma) তাঁর ইংরেজী শিক্ষকের চাকরিটা বেশ উপভোগ করতেন।  কিন্তু বেতন ছিল খুবই কম। মাসে মাত্র ১২ ডলার! এই সামান্য বেতনে বলতে গেলে কিছুই করা যায় না। তার ইংরেজি শেখার উপর এত আগ্রহ ছিল যে তিনি ওই সামান্য কটি পয়সা দিয়ে তার চাকরী চালিয়ে নিতেন এবং নতুন নতুন লোকদের কাছে ইংরেজি শিখতেন এবং অবশেষে তিনি অনেক ভালো ইংরেজি শিখে গেছেন। অতঃপর তিনি আলীবাবার মত একটি বড় ক্রয়-বিক্রয় কোম্পানি গড়ে তোলেন এবং তিনি সফলকাম হয়। তিনি এই জিনিষটি মানুষের কাছে উপস্থাপন করে গেছেন, যে জীবনের যত বড়ই বাধা আসুক না কেন কখনো পিছপা হতে নেই। বাধাকে অতিক্রম করে এগিয়ে যেতে হবে তবেই তুমি সফলতা খুঁজে পাবে। বন্ধুরা বিখ্যাত ব্যক্তির জীবনী মোটেও ছোটখাটো কোন জিনিস নয়। তাই হয়তবা আপনাদের কাছে সবকিছু তুলে ধরতে পারলাম না, নিশ্চয়ই পরবর্তী পোস্টে আপনাদের জন্য এই বিখ্যাত ব্যক্তির জীবনী নিয়ে আরো কিছু আলোচনা করতে পারব। আশা করি আপনারা আমাদের সাথেই থাকবেন। ধন্যবাদ।

আলিবাবা ডট কম এর প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক মা এর আত্মজীবনী

প্রিয় পাঠক

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *